Chittagong Division | চট্টগ্রাম বিভাগ | bdlives.com

ছিয়াত্তরের মন্বন্তর (১৭৬৯-১৭৭০) এর কারণে এক-তৃতীয়াংশ মানুষের মৃত্যুর ফলে রাজস্ব আদায় মারাত্নক হুমকির মুখে পড়ে। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সিলেক্ট কমিটি তাই ১৭৬৯ সালের ১৬ আগস্ট রাজস্ব আদায় তদারকির জন্য তৎকালীন বাংলাকে ১৯টি জেলায় ভাগ করে একজন করে ইংরেজ সুপারভাইজার নিয়োগ করেন। জেলা সৃষ্টির ক্ষেত্রে তথ্য পাওয়া গেলেও বিভাগ সৃষ্টির বিষয়ে ইতিহাসে খুব সুনির্দিষ্টভাবে কোন তথ্য পাওয়া যায় না। তবে ১৭৯৩ সালে চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের ফলে ইংরেজগণ রাজস্ব আদায়বিষয়ক চিন্তাভাবনা থেকে মোটামুটি মুক্ত হয়ে রাজ্যসীমা বিস্তার ও অন্যান্য প্রশাসনিক কাজে মন দেয়। ১৮২৯ খ্রিস্টাব্দে (দি বেঙ্গল রেভিনিউ কমিশনারস্ রেগুলেশন) কালেক্টরের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল শুনানির জন্য সার্কিট হাউজে বিভাগীয় কমিশনারের হাতে কেবল রাজস্ব এবং ফৌজদারি বিষয়ক আপিল শ্রবণের ক্ষমতা রাখা হয়। কমিশনার পদটি তখন থেকে সৃষ্ট। ১৮৩৬ সালে ‘বেঙ্গল ডিস্ট্রিক্ট অ্যাক্ট’ পাশ হলে জেলা গঠনের প্রথম আইনগত ভিত্তি প্রতিষ্ঠিত হয়। তখন থেকে ডেপুটি কমিশনার বা জেলা প্রশাসক এবং কমিশনার শব্দটি আইনীভাবে চালু রয়েছে। ‘কমিশন’ শব্দটির আভিধানিক অর্থ ‘বিশেষ দায়িত্ব’। সেই অর্থে ‘কমিশনার’ শব্দটির অর্থ ‘কোন বিশেষ দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তি’। ইতিহাস ঘেটে দেখা যায় তৎকালীন বঙ্গদেশে ১৮২৯ সালে অন্ততঃ ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম কমিশনার হিসাবে দায়িত্ব দেয়া হয়। আর প্রত্যেক জেলায় তাদের অধঃস্তন হিসাবে পূর্ব সৃষ্ট কালেক্টরগণকে ডেপুটি কমিশনার, যা বাংলায় জেলা প্রশাসক হিসাবে অভিহিত করা হয়ে থাকে। ধারণা করা হয় সেই সময় হতে অর্থাৎ ১৮২৯ সাল হতে চট্টগ্রাম বিভাগের যাত্রা শুরু।